বিষয়ভিত্তিক ক্যাটাগরি

  • video-shot

    MP4

    তামীমা ও তাবীজের অর্থ এবং উভয়ের মধ্যে পার্থক্য ৷ তাবীজ,বালা এবং ধাগা-সুতা ইত্যাদি লটকানো শিরকী কর্মকান্ডের অন্তর্ভুক্ত ৷ কারণ তা আল্লাহর প্রতি তওয়াক্কুলের পরিপন্থি ৷ তাবীজ অসুখ ইত্যাদির কোন চিকিৎসা নয়, কেননা নাবী  তাবীজ পরিধানকারী এক সাহাবীকে বলেছিলেন, তুমি তা খুলে ফেল, কারণ এতে তোমার দুর্বলতাই বৃদ্ধি পাবে ৷ আর তুমি যদি এ অবস্থায় মারা যাও তবে কখনো মুক্তি পাবে না ৷ তাবীজ লটকানো বড় শিরক বলে গণ্য হবে যদি তাতে শিরকী শব্দ লিখা থাকে যেমন, ইয়া আলী! ইয়িা জীলানী! ইয়া রাসূলাল্লাহ প্রভৃতি। অনুরূপ তাতে যদি অর্থহীন কথা বা এমন কিছু লিখা থাকে যা পড়া যায় না, অথবা এর উপর পূর্ণ আস্থা রাখে তাহলেও বড় শিরকে পরিণত হবে। এবং তা ছোট শিরক হবে যদি আল্লাহর উপর আস্থা রাখে এবং এটাকে কেবল অসীলা হিসেবে প্রয়োগ করে।

  • video-shot

    MP4

    আলোচ্য ভিডিও বক্তব্যটিতে তাবীয ব্যবহারের বিধান নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে যে, ইসলামের দৃষ্টিতে তাবীয ব্যবহার অত্যন্ত গর্হিত একটি কাজ। এর দ্বারা আল্লাহর ওপর থেকে বান্দার ভরসা কমে যায় এবং ক্ষেত্রবিশেষ ঈমান পযর্ন্ত নষ্ট হয়ে যায়। পরিশেষে কুরআন ও হাদীসের আলোকে যুক্তি প্রদর্শন করে তাবীযের ভয়াবহতা থেকে মুক্ত থাকতে সকলের প্রতি আহ্বান করা হয়েছে।

  • PDF

    তাবীয ব্যবহারকারী যদি বিশ্বাস করে যে, আল্লাহ ব্যতীত এসব জিনিসের নিজস্ব শক্তি রয়েছে, তাহলে সে বড় শির্ককারী হিসাবে গণ্য হবে। পক্ষান্তরে যদি সে বিশ্বাস করে যে, সবকিছু আল্লাহ্র হাতে; কিন্তু এগুলি মাধ্যম মাত্র এবং এগুলির নিজস্ব কোনো শক্তি নেই, তাহলে সে ছোট শির্ককারী হিসাবে গণ্য হবে। কেননা সে শরী‘আতে অনোনুমোদিত কারণকে কারণ হিসাবে গ্রহণ করেছে এবং আল্লাহ ছাড়া অন্যের দিকে তার অন্তর ঝুঁকে পড়েছে। তার অন্তর যদি এসব জিনিসের প্রতি নির্ভরশীল হয়ে পড়ে এবং সে এগুলির মাধ্যমে কল্যাণ সাধন ও অকল্যাণ দূরীকরণের আশা করে, তাহলে তার এই আমল বড় শির্কের মাধ্যম হিসাবে গণ্য হবে। সুতরাং তাবীয ব্যবহার সম্পর্কে আমাদের সাবধান হওয়া উচিত।

  • PDF

    এ নিবন্ধে তাবিজ-কবচ, ঝাড়-ফুঁক ইত্যাদি বিষয় কুরআন, হাদিস ও পূর্বসূরীদের বাণী ও আদর্শের উপর নির্ভরশীল তথ্য ভিত্তিক আলোচনা পেশ করা হয়েছে। যা এ বিষয়ে পাঠকের সন্দেহ দূরীকরণে বিশেষ ভূমিকা পালন করবে, আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস।

  • PDF

    অত্র কিতাবে কুরআন ও হাদীসের দৃষ্টি তাবীযের বিধান সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।

আপনার মতামত আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ